শুক্রবার,২১শে জুন, ২০১৮ ইং, ৮ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৭ই শাওয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

 
 

ভরা মৌসুমে কমছে না চালের দাম, হতাশায় ক্রেতারা

 

আমনের ভরা মৌসুমেও কমছে না চালের দাম। এতে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, উৎপাদনের ক্ষতি কাটিয়ে না ওঠা এবং আমদানি খরচ বৃদ্ধির কারণে চালের দাম বাড়তি।

গত বছরের এই সময়ের তুলনায় সব ধরনের চালের দাম কেজিতে অন্তত ১২ টাকা বেশি। সরকারি সংস্থা টিসিবির (ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ) এই হিসাবের তুলনায় বাজার দর আরো কিছুটা চড়া। তাই চাল কিনতে গেলে মানুষের কষ্ট ও হতাশার কিছুটা বোঝা যায়। চালের বাজারে এ নিয়ে বিতর্কে জড়াচ্ছেন ক্রেতা-বিক্রেতা।

এক ক্রেতা বলেন, ‘অন্যান্য বছরের তুলনায় চালের দাম বেশি। আমরা তো মধ্যবিত্ত মানুষ আমাদের মোটামুটি আল্লাহর রহমতে চলে যাচ্ছে। কিন্তু আমাদের চাইতেও যারা গরিব, তাদের জন্য তো কষ্টকর।’

এক খুচরা বিক্রেতা বলেন, ‘অগ্রহায়ণ সিজনে নাজিরশাইল, স্বর্ণা ও মোটা এগুলো চাল ওটে। পোলাওর চাল আতপ চাল টাইপের। এখন দাম কমার কথা ছিল, তবে সিজন ভালো যায় নাই। ফলনটাও খুব কম হয়েছে। এ জন্য দাম বেশি। আর মিলাররা কিছু ধান স্টকে রেখেছে। যা ধান উঠেছে, তা পুরা সিজন যাবে না। কিছু ধান ওরা আটকাইয়া রাখছে।’

গতকাল রোববার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, চালের দাম বাড়ায় দেশের দরিদ্র মানুষদের কষ্ট হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম চালের দাম একটু বাড়ুক, যাতে কৃষক তার উৎপাদিত ধানের ন্যায্যমূল্য পায়। কিন্তু এটা যে এত পরিমাণ বাড়বে তা আমাদের জানা ছিল না।’

আজকে

  • ৮ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২১শে জুন, ২০১৮ ইং
  • ৭ই শাওয়াল, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

 

Express News

 
 
 
প্রধান সম্পাদকঃ এম এ জাহান। চেয়ারম্যানঃ ছিদ্দিকুর রহমান।
উপদেষ্টাঃ আঃ বাছিদ আছিদ। পরিচালনায়ঃ আবুবকর ছিদ্দিক।
পৃষ্ঠপোষকঃ আঃ জলিল ভূইয়া।
সিনিয়র রিপোর্টারঃ মোঃ জিয়াউর রহমান,মোঃ ইউছুপ মনির ,মোঃ হারুনুর রশিদ,রাসেল আহাম্মেদ,এ এস হিরু,মোঃ শুকুর আলী,এস আর সাইফুল।