বৃহস্পতিবার,১৯শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং, ৬ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৩রা শাবান, ১৪৩৯ হিজরী

 
 

দুই সিটিতে ভোট: ইসিতে একগুচ্ছ প্রস্তাব বিএনপির

 

গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) একগুচ্ছ সুপারিশ দিয়েছে বিএনপি। দলীয় প্রতীকে এই দুই সিটিতে ভোট হবে আগামী ১৫ মে।

মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদার সঙ্গে এক বৈঠকে এসব সুপারিশ করে বিএনপি।

দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেনের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের এক প্রতিনিধি দল বৈঠকে অংশ নেয়।

বিএনপির সুপারিশগুলো হচ্ছে:
ক. গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটের সাত দিন আগে সেনাবাহিনী মোতায়েন।

খ. গাজীপুর জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদকে অবিলম্বে প্রত্যাহার ও নিরপেক্ষ কর্মকর্তাদের পদায়ন।

গ. নির্বাচনী এলাকায় ইউনিফর্ম ছাড়া আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কোন সদস্য সাদা পোশাকে দায়িত্ব পালন করতে পারবে না।

ঘ. প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসারদের নিজ এলাকায় দায়িত্ব না দেয়া।

ঙ. রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের মুক্তি প্রদান এবং গ্রেপ্তার ও হয়রানি বন্ধ করা।

চ. নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় সকল দলকে সমান সুযোগ দেয়া। গণমাধ্যম কর্মীদের ভোট কেন্দ্রে প্রবেশাধিকার প্রদান ও নির্বিঘ্নে সংবাদ সংগ্রহের ব্যবস্থা করা।

চ. ভোট কেন্দ্রে আনসার-ভিডিপি সদস্যদের নিজ এলাকায় মোতায়েন না করা এবং ভোটে ইভিএম ব্যবহার না করা।

বৈঠক শেষে খন্দকার মোশাররফ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই বলেই কমিশনের উপর আস্থা রাখতে চাই। তারা (ইসি) কথা দিয়েছেন আমাদের অনেক প্রস্তাব বাস্তবসম্মত। আমরা আশা করবো আমাদের প্রস্তাব তারা বিবেচনায় করবে। তারা বলেছেন আমাদের প্রস্তাব বিবেচনায় নিবেন।

বিএনপির আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, নির্বাচন কমিশন এমনভাবে দায়িত্ব পালন করবে যাতে করে তাদের প্রতি আমাদের আস্থা সুদৃঢ় হয়। জাতীয় নির্বাচনে যাওয়ার একটা বাধা দূর হয়। আমাদের আর একটি মূল বাধা আছে। আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া কারাগারে। তার মুক্তি না হলে ২০ দল নির্বাচনের যাবে না। বিএনপি নির্বাচনে যাবে না। আর তা না হলে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে না। তিনি আরো বলেন, উনি (খালেদা জিয়া) মুক্ত হলেই নির্বাচনে যাবো এমনও নাও হতে পারে। নির্বাচন কমিশন নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন না করলে, আস্থার সংকট দূর না হলেও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে না।

প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ ও সুপ্রিম কোর্ট বারের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

অপরদিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদার নেতৃত্ব কমিশনের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আজকে

  • ৬ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং
  • ৩রা শাবান, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

 

Express News

 
 
 
প্রধান সম্পাদকঃ এম এ জাহান। চেয়ারম্যানঃ ছিদ্দিকুর রহমান।
উপদেষ্টাঃ আঃ বাছিদ আছিদ। পরিচালনায়ঃ আবুবকর ছিদ্দিক।
পৃষ্ঠপোষকঃ আঃ জলিল ভূইয়া।
সিনিয়র রিপোর্টারঃ মোঃ জিয়াউর রহমান,মোঃ ইউছুপ মনির ,মোঃ হারুনুর রশিদ,রাসেল আহাম্মেদ,এ এস হিরু,মোঃ শুকুর আলী,এস আর সাইফুল।